স্বাস্থ্য সেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে কমিউনিটি ক্লিনিক।

হাওরাঞ্চলে অসহায় জনগোষ্টিকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করছে সুনাগঞ্জ জেলা, দোয়ারাবাজার উপজেলা, পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের জলসী কমিউনিটি ক্লিনিক।
ক্লিনিকে কর্মরত সি,এইচ,সি,পি ও এইচএ, এফডব্লিউগনের নিরলশ পরিশ্রমের কারনে হাওরপারের গ্রামীন দরিদ্র মানুষের কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌছে গেছে দ্রুত।

এক সময় এই কমিউনিটি ক্লিনিকে রোগী আসতে না চাইলেও ক্লিনিকে কর্মরত সিএইচসিপি সুরজিত সূত্রধরের  আন্তরিকতা ও সময়োপযোগী স্বাস্থ্য সেবা পাওয়ার খরব ছড়িয়ে পড়ায় চিকিৎসা সেবা নিতে এখন সবাই আসছে স্বাচ্ছন্দ্যে।

জানা যায় পান্ডারগাঁও ইউনিয়নে ২ টি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে।  সপ্তাহে ছুটি ব্যতীত  ৬দিনেই সেবা প্রদান করে থাকেন সিএইচসিপি সুরজিত সূত্রধর। আর ৬দিনের মধ্যে ২দিন স্বাস্থ্য সহকারী ও ২ দিন পরিবার কল্যাণ সহকারী  চিকিৎসা সেবা দেন।

এর ফলে জলসী কমিউনিটি ক্লিনিকের আশ-পাশের গ্রাম থেকে প্রতিদিন অর্ধশতাধিক রোগী চিকিৎসা নিতে আসে।

 এখানে এসে মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সেবা,পরিবার পরিকল্পনা সেবা,টিকাদান কর্মসূচি,নরমাল ডেলিভারি, পুষ্টি,স্বাস্থ্য শিক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সেবা ও প্রাথমিক চিকিৎসার ঔষধ দেওয়া হচ্ছে বিনা মূল্যে।
জলসী কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীগন জানান, এক সময় গ্রামের নারীরা কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা নিতে আসত না। এখন ক্লিনিকে কর্মরত সি,এইচ,সি,পির আন্তুরিক ও বন্ধু সুলভ অচরন,চিকিৎসা সেবা ও বিনা মূল্যে ঔষধ খেয়ে ভাল হচ্ছি।
ফলে উপজেলা বা জেলা সদরে চিকিৎসার জন্য যাবার প্রয়োজন পরে না।  জলসী কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত সি,এইচ,সি,পি জানান, এখানে হাওরপাড়ের দরিদ্র পরিবারের মা, শিশু, নারী, পুরুষ সহ সকল বয়সী রোগীকে সঠিক চিকিৎসা দিচ্ছি।

ফলে কমিউনিটি ক্লিনিকে রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। জলসী কমিউনিটি ক্লিনিকই  হতদরিদ্র গ্রামীন জনগোষ্টির বিপদের বন্ধু ও সাহায্যকারী হিসাবে সব সময় পাশে আছে।

দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য পরিদর্শক রেজাউল কবীর বলেন, জলসী কমিউনিটি ক্লিনিক সহ এ উপজেলার প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরতদের সবাই আগত রোগীদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দিতে চেষ্টা করছে। যার ফলে কমিউনিটি ক্লিনিক প্রত্যন্ত এলাকার জনসাধারনের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

SHARE THIS

Author:

Previous Post
Next Post